বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি 22, 2024

 

উপন্যাস সমগ্র ১

 

০. ভূমিকা / সূচিপত্র

ভূমিকা

লেখা শুরু করেছিলাম কবে? প্রায় পনেরো বছর হতে চলল।

সেমিস্টারগুলোর সময় যখন মাথায় চাপ পড়ত, স্ট্রেস রিলিজের জন্য হয়তো এক দেড় পাতা লিখে রাখতাম। গল্পগুলো শেষ হত না কোনোটাই। ভেবেছি, শেষ করব। হয়ে ওঠেনি। থার্ড ইয়ারের আগে যেমন ভাবিইনি। কোনও দিন, আমিও লিখব।

লেখা শুরু হয়েছিল অশোকনগরের এক কাগজের সম্পাদকের জোরাজুরিতে। নীলাদ্রি ভৌমিক তার নাম। আমি নীলাদ্রিমামা ডাকি। কেন জোর দিতেন জানি না। মূলত তাঁর কথাতেই লেখালেখির শুরু। লিটল ম্যাগ বেরোবে। লিখলাম একটা গল্প । উৎসাহ দিলেন বেশ কয়েকজন। বললেন ছোটোগল্পের চরিত্রেরা আমার লেখার মধ্যে প্রতীয়মান হচ্ছে।

উৎসাহ পেয়েই শুরু হল। এল আদরের নৌকা। কলেজ লাইফের সঙ্গে সমান্তরালভাবে আদরের নৌকা লিটল ম্যাগ চলত। প্রথম সংখ্যাতে তো বেশিরভাগই আমার গল্প। বন্ধুদের নামে। কে আনবে অত লেখা?

কলেজ পাস আউটের বছর বেরোল প্রথম গল্পের বই। নিজেই বের করলাম। সারাদিন প্রেসে বসে আছি। প্রুফ জিনিসটা কী, ম্যাগ করার আগে বুঝতামই না। পরে দেখলাম বইয়ের আসল জিনিস ওই প্রুফ। কত কত বানান ভুল যে হয়ে থাকে, বোঝা যায় না। এই ঠিক করলাম, আর-একবার প্রুফ দেখার সময় দেখা গেল আরও ভুল বেরোল।

বিরতি এল। ২০০৮-এর পর ছ-বছর পরে দ্বিতীয় বই। লেখায় ফিরতে শুরু করলাম। ২০১৬ থেকে শ্রীচরণেষু পেজে “অর্জুন” ছদ্মনামে জনপ্রিয়তা এল। বইমেলায় বইয়ের চাহিদাও এল।

পাঠক ভালোবাসলেন। ভালোবাসছেন।

আমার লেখালেখিও যেমন এই ভালোবাসা থেকেই আসে। নইলে অফিস করে এসে কি আর লেখার শক্তি থাকে? ওই ভালোবাসাটা আছে বলেই হয়তো। লড়াইটা করতে পারছি।

লিখতে পারছি।

আমার প্রথম উপন্যাস সমগ্র। বাড়ির বইয়ের আলমারিতে ছোটোবেলায় আমার প্রিয় লেখকদের উপন্যাস সমগ্র দেখেছি। আমার উপন্যাস সমগ্র প্রকাশ পাচ্ছে।

যেন কোনও স্বপ্ন দেখছি।

আশা করি পাঠক পছন্দ করবেন আমার লেখা।

ভালো থাকুন।

এই অভিশপ্ত বছর কোনও জাদুকাঠির ছোঁয়ায় সজীব হয়ে উঠুক, এই আশাটুকু করি।

ইতি

অভীক দত্ত

সূচিপত্র

  1. নীল কাগজের ফুল
  2. অন্তবিহীন
  3. অসময়ের বৃত্তান্ত
  4. শেষের পরে